Monday

হারিয়ে যাওয়া শিশুকে খুজে নিজেই বাসায় পর্যন্ত দিয়ে আসি

SHARE

মেয়েটির নাম আনিপা আক্তার, বয়স আনুমানিক ৪/৫ বছর। আমি অফিস থেকে বাসায় ফিরছিলাম বহদ্দারহাট ফ্লাই ওভার দিয়ে আসার সময় ওকে আমি খেয়াল করলাম একপাশ দিয়ে হেটে চলে আসতেছে। আমি নিচে চলে আসলাম বাইক অফ করে দাঁড়িয়ে রইলাম নামার জন্য। দেখি পিকাপ থেকে মানুষ তিনজন নেমে ওর সাথে কথা বলতেছে, আমি সামনে গেলাম মেয়েটিকে জিজ্ঞেস করলাম নাম কি, বাসা কোথায়? সে রাস্তার পাশে গলি দেখিয়ে বলল ওইদিকে যায়। আমি রাস্তা পার করে দিলাম দেখি ও আবার ঘুরে মেইন রোড পার হচ্ছে দৌড় দিয়ে। আমি আবার থামালাম। এখন মানুষ কয়েকজন জড়ো হয়ে গেল সাথে হিউম্যান রাইটসের একজন ভদ্রলোক ছিল ওর ব্যাগের বই/খাতা চেক করে কোন ঠিকানা বা কিছু পাওয়া গেল না, বইয়ে সীল ছিল স্কুলের "বলোয়ারদিঘী স: প্রা: বি:" কিন্ত বইয়ে অন্য জনের নাম লিখা। অর্থাৎ বইটি কারো পুরনো বই। এখন হিউম্যান রাইটসের আঙ্কেল সহ নতুন চাঁন্দগাও থানায় নিয়ে গেলাম।
ডিউটি অফিসার সুচিত্রা ম্যাম ডিটেইল সব নিল ছবি তুলে নিল, আমাদের নাম্বার ঠিকানা সব নিল। মেয়েটি বারবার বলতেছিল সে বাসা চিনে কিন্ত প্রোপাার এড্রেস বলতে পারতেছে না। ডিউটি অফিসার বললেন ও যখন বলতছে বাসা চিনে ওকে নিয়ে যান যেখানে বলতেছে যদি বাসা খুঁজে না পান থানায় নিয়ে আসবেন। আচ্ছা সেটা হলে সেটাই ভাল, হিউম্যান রাইটসের ভদ্র লোকের আমার সাথে যাওয়ার কথা ছিল। পুলিশ উনাকে যেতে বললেন। থানা থেকে বের হতেই হঠাৎ ওনার ইমার্জেন্সী এসে যাওয়ায় উনি দায়িত্বটাকে আমার উপর দিয়ে চলে গেলেন।
মেয়েটি গাড়ির উপর উঠে বসে আছে ওকে নিয়ে আমার বাসার সামনে গেলাম সাথে আমার একভাই কে নিলাম। গাড়ি ড্রাইভ করতেছি আর জিজ্ঞেস করতেছি কোন দিকে যেতে হবে ও শুধু বলতেছে সামনে সামনে শেষ পর্যন্ত ৪৫ মিনিট গাড়ি চালিয়ে ৩০ মিনিট বস্তিতে হেটে হেটে ওর বাসা খুঁজে ফেলাম। বাসায় ভাই আর বোন ছাড়া কেউ নাই। বাবা মারা গেছে মা গার্মেন্টসে কাজ করে। মেয়েটির নাকি খালার বাসায় যাওয়ার কথা ছিল এদিকে ৭.৩০ বেজে গেছে মেয়েটি কোথায় কারো কোন খবর নাই। হয়তো বাসার লোকজন মনে করছে সে খালার বাসায়, খালা মনে করছে সে বাসায় চলে গেছে।
মেয়েটিকে প্রচুর বকাঝকা দিচ্ছে কান্না করতেছে বেচারি। কি আর করার ওকে অভিভাবকের হাতে তুলে দিয়ে বাসার দিকে ফিরলাম।
এত লম্বা লেখাটা পড়ার জন্য ধন্যবাদ। পরিশেষে বলতে চায় দয়া করে কেউ দায়িত্ব দেখে হাত গুটিয়ে ফেলবেন না। আজকে আমি কারো উপকার করতে পারলে কাল কে কেউ আমার উপকার করবে।
আল্লাহ সবাইকে সুস্থ রাখুক। সাবধানে থাকবেন।
- Saiyed Islam
SHARE

Author: verified_user