Friday

দশটাকা ও একটি পূর্ণদৈর্ঘ্য বাংলা সিনেমা

SHARE

দশটাকা ও একটি পূর্ণদৈর্ঘ্য বাংলা সিনেমা 

- Motaher Ahmed Chowdhury Pavel


Bangla Golpo



২০০৯ সাল। রাতে টানা তিনটি মুভি দেখে ঘুমানোর কারণে সকাল দশটা বাজেও বিছানায় গভীর ঘুমে মগ্ন ছিলাম। সকাল দশটায় একটা ফোন আসলো। ঘুম ঘুম চোখে রিসিভ করলাম।



ওপাশ থেকে: আসসালামুয়ালাকুম। আমি ঢাকা থেকে বলছি, ভাইয়া।
আমি: মনে মনে চিন্তা করলাম হয়ত, লাখ লাখ জিতে গেলাম বলে, টাকা পাঠাতে বলবে। আমি উত্তর দিলাম, জ্বি বলেন।
ওপাশ থেকে: ভাইয়া আমি একটা ভুল করেছি। আমি আমার বড় বোনের মোবাইল নম্বরে দশ টাকা দিতে গিয়ে আপনার মোবাইলে দিয়ে দিয়েছি। আপনার নম্বরের শেষে ৮২। আর আপুরটা ২৮। যদি ভাইয়া টাকাটা দিয়ে দিতেন।
আমি: আচ্ছা, আমি দিয়ে দিবো একটুপর।
এ কথা বলে আমি ফোন কেটে দিলাম।
পাঁচ মিনিটপর আবার একটা ফোন এলো:-
আমি: হ্যালো
ওপাশ থেকে: ভাইয়া, আসসালামুয়াইকুম। আমি, একটু আগে যে মেয়েটা ফোন করছে, তার সেজো বোন। আপনার ফোনে ভুলে দশ টাকা দিয়ে দিয়েছে। যদি একটু দিয়ে দিতেন। প্লিজ ভাইয়া।
আমি: আচ্ছা একটুপর দিচ্ছি।
এ কথা বলে ফোন কেটে আবার ঘুম।
দশ মিনিটপর আবার ফোন আসলো:
আমি: হ্যালো, কে?
ওপাশ থেকে: ভাইয়া, আসসালামুয়ালাইকুম। একটু আগে যারা কল দিসে ওরা আমার ছোট বোন। আর বলবেন না ভাইয়া, ছোট বোনকে বড় আপু দোকানে লোড দিতে পাঠিয়েছে। ছোট বোন ভুলে আপনাকে টাকা দিয়ে দিসে। যদি দশ টাকাটা দিয়ে দিতেন।
আমি: মনে মনে বললাম, কি হচ্ছে এসব। উত্তরে বললাম, আচ্ছা দিয়ে দিচ্ছি। এ কথা বলে আবার ঘুম।
কিছুক্ষণ পর আবার ফোন আসলো:
আমি: হ্যালো কে?
ওপাশ থেকে: ভাইয়া, আসসালামুয়াইকুম।
আমি: কে?
ওপাশ থেকে: ভাইয়া, একটু আগে যারা ফোন করছে ওরা সবাই আমার ছোট বোন। ভাইয়া টাকাটা কি দিচ্ছেন?
আমি: মনে মনে বললাম, কি হচ্ছে এসব! ঘড়ির দিকে থাকালাম, এগারোটা বাজে। আচ্ছা আপু দিচ্ছি।
ওপাশ থেকে: ধন্যবাদ।
আমি: আচ্ছা একটা কথা বলি?
ওপাশ থেকে: বলেন, ভাইয়া।
আমি: আপনারা কয় ভাই-বোন?
ওপাশ থেকে: (একটু হেসে) আমরা চার বোন, তিন ভাই।
আমি: আচ্ছা দিয়ে দিচ্ছি।
ফোন কেটে দিলাম দৌড়। আবার তিনভাই ফোন করা শুরু করবে।
দোকানে গিয়ে ঐ নম্বরে ১০টাকা লোড দিলাম। এসে আবার শুয়ে পড়লাম।
কিছুক্ষণ একটা ফোন আসলো:
আমি: হ্যালো।
ওপাশ থেকে: ভাইয়া টাকা আসছে। ধন্যবাদ। আপনি খুব ভালো।
আমি: ধন্যবাদ।
এ কথা বলে কেটে দিলাম।
একটুপর আরেকটা ফোন এলো:
আমি: হ্যালো?
ওপাশ থেকে: ভাইয়া আপু টাকা পাইছে। আপু অনেক খুশি হয়েছে আপনার ওপর। আপনাকে ধন্যবাদ দিতে বলছে।
আমি: ওয়েলকাম।
খানিক সময়পর আরেকটা ফোন এলে:
আমি: কে?
ওপাশ থেকে: ঐ যে, ভাইয়া সেজো বোন। টাকা দিয়েছেন শুনে খুশি হলাম। ভালো থাকবেন।
আমি: মনে মনে বললাম, নিশ্চয় স্বপ্ন দেখছি। আচ্ছা ঠিক আছে। ভালো থাকুন।
এ কথা বলেই ফোন কেটে দিলাম। একটুপর আবার ফোন:-
আমি: কে?
ওপাশ থেকে: ভাইয়া! আমাকে বাঁচিয়ে দিসেন। টাকাটা না দিলে আপু আমাকে খুব বকা দিতো। আপনি অনেক ভালো।
আমি: মনে মনে, হে আল্লাহ কি হচ্ছে এটা? তারপর, জানতে চাইলাম, আপনার ভাইরা কি ফোন করবে?
ওপাশ থেকে: হ্যাঁ ভাইয়া ওনারা তো বড় আপু থেকে আপনার নম্বর নিসে। ফোন করবে।
আমি: আচ্ছা। ধন্যবাদ।
তাড়াতাড়ি ফোন কেটে, ফোনটা বন্ধ করে দিলাম। দুই ঘন্টাপর ফোন খোলার পর, তিনটা এসএমএস পেলাম। এসএমএসগুলোতে লেখা ছিলো:-
প্রথমটায়, ঢাকায় বেড়াতে আসলে আমাদের বাড়িতে আসবেন, ঢাকাইয়া মুগলাই খাওয়াবো নে।
দ্বিতীয়টা, ফোনে কথা বলার ইচ্ছা ছিলো, বোনের টাকা ফেরত দিয়েছেন জেনে খুশি হলাম।
তৃতীয়টায়: তুমি ভাই সেরা।
দশটাকার জন্য তারা যা দেখালো আমাকে। পুরোটাই সিনেমা। ভাগিস্য, ১০০ টাকা না। ১০০ টাকা হলে হয়ত আমাকে পুরো পরিবার দেখতে আসতো।
গল্পটা মনে পড়লে এখনো হাসি পায়। 
SHARE

Author: verified_user